ই-অগ্রণী দর্পণ

অগ্রণী ব্যাংকের নিজস্ব প্রকাশনা

অগ্রণী ব্যাংক ও বিকাশ এর দ্বিমুখী লেনদেন সেবা উদ্বোধন করলেন মাননীয় অর্থমন্ত্রী

সারাদেশে অগ্রণী ব্যাংকের এক কোটিরও বেশি গ্রাহকের জন্য ব্যাংকিং লেনদেন আরো সহজ, নিরাপদ এবং সময় ও খরচ সাশ্রয়ী করার জন্য অগ্রণী ব্যাংক এবং বিকাশ দ্বিমুখী সেবা চালু করেছে। এর ফলে অগ্রণী ব্যাংকের হিসাব থেকে বিকাশ হিসাবে টাকা নেয়া এবং বিকাশ থেকে টাকা অগ্রণী ব্যাংক হিসাবে টাকা জমা দেয়াসহ ব্যাংকিং লেনদেন এখন খুব সহজে করা যাবে বিকাশে।

অন্য রাষ্ট্র মালিকানাধীন ব্যাংক যেখানে বিকাশের সাথে একমুখী চুক্তি করেছে, অগ্রণী সেখানে দ্বিমুখী সেবা চালু করেছে।

২০ আগষ্ট ২০২০, এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে এই সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, এফসিএ। অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, অগ্রণীর পর্ষদের চেয়ারম্যান ড. জায়েদ বখ্‌ত, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামাল, অগ্রণীর পর্ষদের সম্মানিত পরিচালকবৃন্দ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের পর্যবেক্ষক, ব্যাংকের এমডি এবং সিইও মোহম্মদ শামস্‌-উল ইসলাম, বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর এবং চিফ কমার্শিয়াল অফিসার মিজানুর রশীদ।

এই সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের জীবনমান উন্নয়নে সরকারের সদিচ্ছায় পাবলিক প্রাাইভেট পার্টনারশিপে অগ্রণী ব্যাংকের সেবা বিকাশের মাধ্যমে মানুষের ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে। আমাদের দেশের মোবাইল আর্থিক সেবার খ্যাতি বিশ্বজোড়া, আজকের এই উদ্যোগে সেই সাফল্যে আরো একটি পালক যুক্ত হলো।

সিনিয়র সচিব মো. আসাদুল ইসলাম বলেন, গ্রাহকবান্ধব সেবা প্রদানে অগ্রণী ব্যাংকের এই উদ্যোগ প্রশংসনীয়। এতে করে সকল পর্যায়ের গ্রাহকের জন্য ব্যাংকিং সেবা আরো সহজলভ্য হলো । তবে তিনি এই লেনদেন করার সময় সাইবার নিরাপত্তা যাতে কঠোরভাবে পরিপালন করা হয়, সেই বিষয়েও গুরুত্বারোপ করেন।

অগ্রণী ব্যাংকের চেয়ারম্যান বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দেশের আপামর জনগোষ্ঠীর কাছে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা পৌঁছাতে অগ্রণী ব্যাংকের এই উদ্যোগ অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। এ ছাড়া এই উদ্যোগ গ্রহণের ফলে ব্যাংকের গ্রাহকসেবার মানও বৃদ্ধি পাবে। অগ্রণী ব্যাংকের পরিচালক মাহমুদা বেগম ডিজিটালাইজড সেবা কার্যক্রম চালু করায় সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ দেন ও ভূয়সী প্রশংসা করেন।

অগ্রণী ব্যাংকের এমডি এবং সিইও বলেন, গ্রাহককে এখন ব্যাংকে আসতে হবে না, ব্যাংক যাবে গ্রাহকের কাছে। বিকাশের মাধ্যমে অগ্রণী ব্যাংকের লেনদেনের সুযোগে এটাই বাস্তবতা। প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে শুরু করে শহর-দেশজুড়ে আমাদের ৯৫৮টি শাখা এবং প্রায় ৪০০টি এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের অগণিত গ্রাহক নতুন এই সেবার কল্যাণে তাদের প্রয়োজনমতো যেকোনো সময় লেনদেন করতে পারবেন। সারা দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ব্যাংকের শাখাগুলোর সার্বিক সেবার মানও আরো বাড়াতে এই পদক্ষেপ জোরালো ভূমিকা রাখবে। বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর বলেন, আমাদের গ্রাহকবান্ধব ডিজিটাল লেনদেন প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে ব্যাংকগুলো তাদের সেবাকে আরো সৃজনশীলভাবে গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দিতে পারে। কেবল অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা আনা এবং জমা দেয়াই নয়; ঋণ প্রদান, বিনিয়োগের মতো ব্যাংকিং সেবাগুলোও গ্রাহকের জন্য আরো সহজলভ্য করা সম্ভব। অগ্রণী ব্যাংকের সাথে বিকাশের এই যৌথ পথচলা কার্যকর আর্থিক অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে এক শুভ সূচনা ও নতুন দিগন্তের উম্মোচন।

এই সেবার কারণে কোভিড মহামারীর মধ্যে গ্রাহক ব্যাংকে না এসে নিরাপদ দূরত্ব ও স্বাস্থ্যসুরক্ষা বজায় রেখে দিনরাত (২৪/৭) বিকাশ অ্যাপে কয়েকটি ধাপে খুব সহজেই অগ্রণী ব্যাংকের গ্রাহক তথ্য সংযুক্ত করে প্রয়োজন অনুসারে লেনদেন করতে পারবেন। প্রথমবার ৫০০ টাকার অধিক লেনদেন হলে গ্রাহক ১০০ টাকার ক্যাশ ব্যাক পাবেন। অ্যাড মানির মাধ্যমে অগ্রণী ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে বিকাশে টাকা এনে গ্রাহক প্রয়োজন মতো বিদ্যুৎ বিলসহ অন্যান্য ইউটিলিটি বিল দেয়া, বিভিন্ন ধরনের পেমেন্ট করা, মোবাইল রিচার্জ করা, টিকিট ক্রয়, কাউকে টাকা পাঠানো বা ক্যাশ আউট করাসহ সব বিকাশ সেবা মুহূর্তেই নিতে পারবেন। আবার ডিপিএস বা ঋণের কিস্তি জমা দেয়া, প্রয়োজনে ব্যাংকে না গিয়ে অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দেয়াসহ আরো নানান সেবা ট্রান্সফার মানির মাধ্যমে গ্রাহকগণ ঘরে বসেই নিতে পারবেন। বিকাশের মাধ্যমে ছোট অংকের এসব লেনদেন সুবিধা ব্যাংকের শাখাগুলোর ওপর চাপ কমিয়ে দেবে এবং বিশেষায়িত সেবার জন্য সেখানে আসা গ্রাহকদের প্রতি বাড়তি মনোযোগ দেয়ার সুযোগ তৈরি করবে। অন্য দিকে ব্যাংকিং সময়সীমার মধ্যে নির্ধারিত শাখায় গিয়ে লেনদেনের বাধ্যবাধকতা না থাকায় গ্রাহক তার প্রয়োজন অনুযায়ী যেকোনো স্থান থেকে দিনে-রাতে ২৪ ঘণ্টা লেনদেনের স্বাধীনতা ও সক্ষমতা অর্জন করবেন।

প্রতিবেদক – এ এইচ এম জহিরুল ইসলাম

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

কপিরাইট © অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড কর্তৃক সংরক্ষিত | Newsphere by AF themes.